বিশ্বে এই প্রথম, এমন বিশ্বরেকর্ড করলেন সাকিব আল হাসান

বিস্তারিত দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন
Loading...

কেউ ভাবতেও পারেননি এমন কিছু হবে। ক্রিকেটের ইতিহাস ১৩৯ বছরের দীর্ঘ। ১৮৭৭ সালে মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়া আর ইংল্যান্ডের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল ইতিহাসে প্রাতিষ্ঠানিক ক্রিকেটের পদযাত্রা। সেই থেকে হাঁটি হাঁটি পা পা করে ১৩৯টি বছর পার করে ফেললো ক্রিকেট। এরই মধ্যে ১৯৭১ সালে সেই মেলবোর্নেই শুরু হলো ওয়ানডে ক্রিকেটের শুরু। এরপর ২০০৫ সালে শুরু হলো ক্রিকেটের সবচেয়ে সংক্ষিপ্ততম সংস্করণ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট।
তিন ফরম্যাট মিলিয়ে ক্রিকেটারদের পরিসংখ্যান হিসেব ধরলে সেটার শুরু হবে ২০০৫ সাল থেকেই। এরপর থেকেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত তিন ফরম্যাট মিলিয়ে কোনো দেশের কোনো বোলারই শীর্ষে উঠতে পারেনি। এই প্রথম বাংলাদেশের এক বোলার এই বিরল কৃতিত্বটি অর্জণ করে নিলো।
সাকিব আল হাসানই এখন একমাত্র বোলার, যিনি টেস্ট, ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে তিন ফরম্যাটেই শীর্ষ উইকেট শিকারি। আজ মিরপুরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে দলটির ওপেনার শাবির নুরিকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ছুঁয়ে ফেলেন ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি আবদুর রাজ্জাককে।
২০৭টি উইকেট নিয়ে এতদিন ওয়ানডেতে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারী ছিলেন আবদুর রাজ্জাক। শাবির নুরিকে আউট করে সাকিবেরও উইকেট হয়ে গেলো ২০৭টি। টেস্টে সাকিবের উইকেট সংখ্যা ১৪৭টি। এই ফরম্যাটে ১০০ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন মোহাম্মদ রফিক। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীও সাকিব আল হাসান। তার ঝুলিতে সর্বোচ্চ ৬৫ উইকেট। ৪৪ উইকেট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন আবদুর রাজ্জাক।
বাংলাদেশ ছাড়া বাকি ৯ টেস্ট খেলুড়ে দেশের মধ্যে সাত দেশের সাতজন বোলার আছেন যারা, ওয়ানডে এবং টেস্ট- এই দুই ফরম্যাটে তাদের দেশের হয়ে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। তারা হলেন, ইংল্যান্ডের জেমস অ্যান্ডারসন, ভারতের অনিল কুম্বলে, পাকিস্তানের ওয়াসিম আকরাম, দক্ষিণ আফ্রিকার শন পোলক, শ্রীলংকার মুত্তিয়া মুরালিধরন, ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোর্টনি ওয়ালস এবং জিম্বাবুয়ের হিথ স্ট্রিক।
এই সাত দেশের বাইরে অস্ট্রেলিয়ার শেন ওয়ার্ন টেস্টে এবং গ্লেন ম্যাকগ্রা রয়েছেন ওয়ানডেতে শীর্ষ উইকেটশিকারী। টি-টোয়েন্টি শীর্ষে রয়েছেন শেন ওয়াটসন। নিউজিল্যান্ডে স্যার রিচার্ড হ্যাডলি টেস্টে, ড্যানিয়েল ভেট্টরি ওয়ানডেতে এবং নাথাম ম্যাককালাম রয়েছেন টি-টোয়েন্টির শীর্ষে।
প্রতিটি দেশের হয়ে তিন ফরম্যাটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী
অস্ট্রেলিয়া
টেস্ট : শেন ওয়ার্ন (৭০৮)
ওয়ানডে : গ্লেন ম্যাকগ্রা (৩৮১)
টি-টোয়েন্টি : শেন ওয়াটসন (৪৮)
বাংলাদেশ
টেস্ট : সাকিব আল হাসান (১৪৭)
ওয়ানডে : সাকিব আল হাসান, আবদুর রাজ্জাক (২০৭)
টি-টোয়েন্টি : সাকিব আল হাসান (৬৫)
ইংল্যান্ড
টেস্ট : জেমস অ্যান্ডারসন (৪৬৩)
ওয়ানডে : জেমস অ্যান্ডারসন (২৬৯)
টি-টোয়েন্টি : স্টুয়ার্ট ব্রড (৬৫)
ভারত
টেস্ট : অনিল কুম্বলে (৬১৯)
ওয়ানডে : অনিল কুম্বলে (৩৩৭)
টি-টোয়েন্টি : রবিচন্দ্রন অশ্বিন (৫২)
নিউজিল্যান্ড
টেস্ট : রিচার্ড হ্যাডলি (৪৩১)
ওয়ানডে : ড্যানিয়েল ভেট্টরি (৩০৫)
টি-টোয়েন্টি : নাথান ম্যাককালাম (৫৮)
পাকিস্তান
টেস্ট : ওয়াসিম আকরাম (৪১৪)
ওয়ানডে : ওয়াসিম আকরাম (৫০২)
টি-টোয়েন্টি : শহিদ আফ্রিদি (৯৭)
দক্ষিণ আফ্রিকা
টেস্ট : শন ফোলক (৪২১)
ওয়ানডে : শন পোলক (৩৯৩)
টি-টোয়েন্টি : ডেল স্টেইন (৫৮)
শ্রীলংকা
টেস্ট : মুত্তিয়া মুরালিধরন (৮০০)
ওয়ানডে : মুত্তিয়া মুরালিধরন (৫৩৪)
টি-টোয়েন্টি : লাসিথ মালিঙ্গা (৭৮)
ওয়েস্ট ইন্ডিজ
টেস্ট : কোর্টনি ওয়ালশ (৫১৯)
ওয়ানডে : কোর্টনি ওয়ালশ (২২৭)
টি-টোয়েন্টি : ডোয়াইন ব্র্যাভো (৫১)
জিম্বাবুয়ে
টেস্ট : হিথ স্ট্রিক (২১৬)
ওয়ানডে : হিথ স্ট্রিক (২৩৯)
টি-টোয়েন্টি : গ্রায়েম ক্রেমার (৩৩

বিস্তারিত দেখতে নিচের ছবিতে ক্লিক করুন